গুলঃ০৩

বিদেশে যাওয়ার ব্যাপার নিয়ে সন্ধ্যায় একখান জরুরী মীটিং ছিল। মীটিং শেষে রুমে এসে কালকের ক্লাস টেস্টের সিলাবাসে চোখ বুলাতেই ঘুম পেয়ে গেল। যেই না চোখ বুজেছি সেলফোনটা ক্যাওম্যাও করে বেসুরো সুরে বেজে উঠলো।  স্ক্রিনে SHERLOCK calling……..জি, টাশকি খাওয়ার কিছুই নাই। আমি শারলক হোমসের কথাই বলছি।

আমি – কি হইছে। অসময়ে ফোন দিলা যে। খেঁকিয়ে উঠলাম আমি।

হোমস – আরে অসময়ের কি দেখলা। আমার এখানে তো এখন দিন।  উল্টা খেঁচকায় উঠলো শারলক।

আমি – কি হইসে কও।

হোমস – আরে আর কইয়োনা। একটা কেসে আটকায় গেসি। একটু বুদ্ধিশুদ্ধি দেও।

এরপর অনেকক্ষণ বাতচিত করার পর একটা সমাধান দিলাম আমি।

সমাধান পেয়েই বেটা ফোনের লাইনটা কেটে দিল। মেজাজ খারাপ হইয়া গেল আমার। এতটুকু কৃতজ্ঞতাবোধও নাই !!!

………………

রাতের খাবার খেয়ে এসে যেই না রেফ্রিজারেশনের চোথাটা টেনে নিয়ে পড়তে বসছি এমন সময় শারলকের ফোন। গালি দেওয়ার নিয়ত কইরা যেই কলটা রিসিভ করলাম

শারলক বইলা উঠলো THANK YOU বন্ধু। কেস্‌ সলভ্‌ড, মামলা ডিসমিস। তুমি নেক্সট টাইম ইংল্যান্ডে আসলে বেকার ষ্ট্রীটে চইলা আইসো। জানি তুমি ব্যস্ত মানুষ, এরপরও বন্ধুর দাওয়াতটা রাখার চেষ্টা করবা।

আইচ্ছা ঠিকাসে কইয়া লাইন কাইটা দিলাম। CASE CLOSED B|

Advertisements

2 thoughts on “গুলঃ০৩

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s